Rajib dead

দুই বাসের রেষারেষিতে হাত হারানো রাজীব আর নেই

Share with social media...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

রাজধানীতে দুই বাসের রেষারেষিতে হাত হারানো রাজীব গতকাল সোমবার দিবাগত রাত ১২টা ৪০ মিনিটের দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে  মৃত্যুবরণ করেছেন ।  ৭ দিন অচেতন অবস্থায় থাকার পর ডাক্তাররা তাকে মৃত ঘোষণা করেন ।   তাকে ময়নাতদন্ত শেষে গ্রামের বাড়ী পটুয়াখালীতে নিয়ে যাওয়া হয় ।

৩ এপ্রিল বিআরটিসির একটি দোতলা বাসের পেছনের ফটকে দাঁড়িয়ে গন্তব্যে যাচ্ছিলেন রাজধানীর  তিতুমীর কলেজের স্নাতকের (বাণিজ্য) দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র রাজীব হোসেন (২১)। হাতটি বেরিয়ে ছিল সামান্য বাইরে। হঠাৎ পেছন থেকে একটি বাস বিআরটিসির বাসটিকে পেরিয়ে যাওয়ার বা ওভারটেক করার জন্য বাঁ দিকে গা ঘেঁষে পড়ে। দুই বাসের প্রবল চাপে রাজীবের হাত শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। শমরিতা হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসার পর রাজীবকে ঢাকা মেডিকেল কলেজে স্থানান্তর করা হয়। সাময়িক উন্নতির পর ১৬ এপ্রিল থেকে তাঁর মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ শুরু হয়। রাজীবের মস্তিষ্ক অসাড় হয়ে যায়। সেই থেকে আর জ্ঞান ফেরেনি তাঁর।

রাজীবের ঘটনাটি দেশের মানুষকে নাড়া দিয়ে যায়। রাস্তায় যানবাহনের বেপরোয়া চলাচল নিয়ে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়। রাজীবের বাবা মা ছোটবেলায় মারা যান । একমাত্র খালাই তার দেখাশোনা করছিলেন  । ছোট দুই ভাইকে প্রতিষ্ঠিত করাই ছিলো তার একমাত্র উদ্দেশ্য । তার  ছোট দুই ভাই কোরআনের হাফেজ ।