স্বপ্নজাল সিনেমায় ভিন্ন লুকে ইরেশ জাকের

Share with social media…
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  



সাম্প্রতি মুক্তিপ্রাপ্ত স্বপ্নজাল সিনেমায় ভিন্ন লুকে ইরেশ জাকের ভিন্নধর্মী চরিত্রে অভিনয় করে প্রশংসা পেয়েছেন ইরেশ যাকের। ‘ছুঁয়ে দিলে মন’ ছবিতে খল অভিনেতা হিসেবে অভিনয় করে ২০১৫ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ঘরে তুলেছেন তরুণ এই অভিনেতা। শুক্রবার (৬ এপ্রিল) সারাদেশে মুক্তি পেয়েছে ইরেশ অভিনীত ও গিয়াস উদ্দিন সেলিম পরিচালিত ‘স্বপ্নজাল’। ছবিটিতে নেতিবাচক গুরুত্বপূর্ণ একটি চরিত্রে অভিনয় করে সবার নজর কেড়েছেন তিনি।

‘স্বপ্নজাল’-এ মুখভর্তি লম্বা দাড়ি নিয়ে দুর্ধর্ষ একটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন ইরেশ যাকের। তবে এই দাড়ি ছিলো আসল। শুধু ছবিটির চরিত্রটিকে বাস্তব রূপ দিতেই তিনি আসল দাড়ি নিয়ে পর্দায় হাজির হয়েছেন। সাধারণত চরিত্রের প্রয়োজনে অভিনয়শিল্পীদের হরহামেশাই নানা রকম গেটআপে পর্দায় হাজির হতে দেখা যায়। যার জন্য তারা কৃত্রিম চুল, দাড়ি অথবা গোঁফ লাগিয়ে পর্দায় উপস্থিত হন। ইরেশ বলেন, মাঝেমধ্যে অল্প সময়ের জন্য দাড়ি রাখি। তবে সেটা মাসখানেকের বেশি না। ‘স্বপ্নজাল’ ছবির জন্য আমি ৭ মাস ধরে দাড়ি কাটিনি। একদম আসল দাড়ি নিয়েই পুরো ছবির শ্যুটিং করেছি।

অভিনয় ছাড়া ইরেশ একজন ব্যবসায়ীও। তাই নানা সময় তাকে ব্যবসায়িক মিটিংয়ে অংশ নিতে হয়। আর সে সময় মুখভর্তি দাড়ি নিয়ে অনেকের প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়েছে তাকে। যখনই মিটিংয়ে যেতাম, তখনই অনেকে প্রশ্ন করতো এমন দাড়ি রাখার কারণ কী? প্রতিবার সবাইকে কারণটি বুঝিয়ে বলতাম। তবে কখনও বিরক্ত হইনি, বরং বিষয়টি বেশ উপভোগ করতাম, যোগ করেন ইরেশ।

‘স্বপ্নজাল’-এ ফজলুর রহমান বাবুর সহযোগী হিসেবে অভিনয় করেছেন ইরেশ। ছবিতে তারা দু’জন মিলে খুন ও ভূমি দখলসহ নানা অপকর্মে লিপ্ত থাকেন। ইরেশের ভাষ্যে, বাবু ভাই ছবিতে চমৎকার অভিনয় করেছেন। তিনি কাজের ব্যাপারে অনেক সহযোগিতা করেন। তাছাড়া সেলিম ভাই তার দক্ষ হাতে নান্দনিকভাবে ছবি নির্মাণ করেছেন। সব মিলেয়ে ‘স্বপ্নজাল’ আমার একটি স্মরণীয় জার্নি হয়ে থাকবে। ৬ এপ্রিল দেশের ২০টি প্রেক্ষাগৃহে ‘স্বপ্নজাল’ মুক্তি পেয়েছে। এতে পরীমনির বিপরীতে অভিনয় করেছেন ইয়াশ রোহান।



Related Post

Leave a comment

Your email address will not be published.


*