হাথুরু ভাবনাকে ছাপিয়ে কিংবদন্তি মাশরাফির কাছে ম্যাচ জয়ই মুখ্য

Share with social media...
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ত্রিদেশীয় সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দারুণ ইতিবাচক খেলেছে জিম্বাবুয়ে। ব্যাটিং, বোলিং ও ফিল্ডিং তিন বিভাগেই ক্রেমারদের আক্রমনাত্মক মানসিকতা দিন শেষে তাদের এনে দিয়েছে ১২ রানের জয়। একই খেলা শুক্রবার (১৯ জানুয়ারি) শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে খেলতে চাইছেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা।

বৃহস্পতিবার (১৮ জানুয়ারি) শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের সম্মেলন কক্ষে তিনি একথা জানান। মাশরাফি বলেন, ‘জিম্বাবুয়ে কাল যে ব্র্যান্ডটা খেলেছে। আমাদের তো ওইভাবে খেলতে হবে। এমন না যে জিম্বাবুয়ে ভালো না খেলে জিতেছে। ওরা যে ক্রিকেটটা খেলেছে নির্দিষ্ট দিনে এমন ক্রিকেট না খেলে জেতা সম্ভব না। আমাদের সাথে শ্রীলঙ্কাও এমন খেলতে পারে। তাই আমাদের মানসিকভাবে প্রস্তুত থাকতে হবে। যাতে এমন পরিস্থিতি আমরা নিয়ন্ত্রণ করতে পারি।’

সন্দেহ নেই, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচটিকে সামনে রেখে মাঠের চাইতে মাঠের বাইরের আলোচনাটিই এখন সবচাইতে বেশি। কারণটিও সঙ্গত। এক মাস আগে টাইগারদের ছেড়ে শ্রীলঙ্কান দলের হেড কোচের দায়িত্ব নিয়েছেন চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। যার শিষ্যরা এই ম্যাচে সাবেক শিষ্যদের মোকাবেলা করবে। যেহেতু তিনি আগে বাংলাদেশের হয়েই প্রতিপক্ষ বধের নীল নকশা আঁকতেন তাই তাকে নিয়ে কিছুটা হলেও শঙ্কা বলুন আর দ্বিধাই বলুন, তা কিন্তু থেকে যায়। কারণ মাশরাফিদের বিগত দিনের ম্যাচ পরিকল্পনা তার মাথা থেকেই আসতো।

কিন্তু টাইগার দলপতি মাশরাফি ঠিক এভাবে ভাবতে চাইছেন না। হাথুরু ভাবনাকে ছাপিয়ে তার কাছে ম্যাচ জয়ই মুখ্য, ‘সত্যি কথা বলতে এসব ম্যাটার করে না। ব্যাক অব মাইন্ডে এটাতো থাকে ম্যাচটা খেলতে হবে জিততে হবে। এর বাইরে কোন সুযোগই নাই চিন্তা করার। চিন্তা করলে হয়কি আল্টিমেটলি আরও বেশি চাপ আসে। আমার কাছে মনে হয় খেলার দিকেই সবার মনোযোগ থাকে। সেটাই আছে আমরা যেন আরও ভালো খেলি।’

এমন ভাবনাকে সঙ্গী করেনই শুক্রবার (১৯ জানুয়ারি) দুপুর ১২টায় নিজেদের দ্বিতীয় ও টুর্নামেন্টের তৃতীয় ম্যাচে সাবেক কোচ হাথুরুসিংহের শ্রীলঙ্কাকে মোকাবেলা করবে চলমান অভিভাবকহীন টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের দুই কান্ডারি মাশরাফি-সাকিব ও তাদের সতীর্থরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *